নির্বাচন বয়কট করে নকশালবাড়ীর সশস্ত্র সংগ্রামের পথে গ্রামে গ্রামে জোতদার-রাজ খতম করে কৃষকরাজ -বিপ্লবী কমিটি পাল্টা সরকার গঠন করে এগিয়ে চলুন।

“বুর্জোয়া পার্লামেন্ট হল রাজনীতিবিদদের বৈশ্যাখানা”  – মহামতি কমরেড লেনিন

 

নির্বাচন বয়কট করে নকশালবাড়ীর সশস্ত্র সংগ্রামের পথে গ্রামে গ্রামে জোতদার-রাজ খতম করে কৃষকরাজ -বিপ্লবী কমিটি পাল্টা সরকার গঠন করে এগিয়ে চলুন।

কমরেডস ও বন্ধুগন,

আবার ভোট শুরু হল।  ২০১৪ সালে কে সিংহাসনে বসবে  কোটিপতিরা – বিভিন্ন কেলেঙ্কারীর নায়ক নায়িকারা সব আসরে নেমেছে। জেলখাটা সব শয়তানদের বিভিন্ন ভোটের পার্টিগুলো ভগবান সাজাতে ব্যস্ত। মাঝে প্রধান যে সেই প্রধানমন্ত্রী চুরির দায়ে ধরা পড়েছে।  সেই ড: সিংহ বিদায় নিচ্ছে। ভারতবর্ষের এত বড় সর্বনাশ করেও মুখে সেই তৃপ্তির হাঁসি। টাটা – বিড়লা – আম্বানিরা সবাই এক এক সাম্রাজ্যবাদীদের দালাল।  কেউ মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের , কেউ ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদের, কেউ ফরাসী সাম্রাজ্যবাদের, কেউ বা রুশ সাম্রাজ্যবাদের, ইত্যাদী। এই ভোট বরাবরের মত যে ওই সাম্রাজ্যবাদীদের নির্দেশেই হচ্ছে এইটা সব ভোট পার্টিগুলো চেপে যাচ্ছে।  যেন ভোট দিতে পারলেই সব গণতন্ত্র হয়ে গেল।  আসলে সব পার্তিগুলোই ওদের দালাল।  তাই দালাল পুঁজিপতিদের একটা গোষ্ঠী কংগ্রেসের সোনিয়াকে রানী সাজাচ্ছে, কোন গোষ্ঠী আবার শিবের বরপুত্র বলে বিজেপির মোদীকে তুলে ধরছে।  রামভক্ত বীর হনুমান বলে আর বলছে না।  দিল্লীতে যদি বসতে পারে তখন হুঙ্কার ছাড়বে।
কংগ্রেসের নতুন দালাল মমতাকেও কেউ কেউ আবার দিল্লীতে বসাতে চায়।  তাই মমতাও আওয়াজ দিছে দিল্লী চল। সবার চোখ এখন প্রধানমন্ত্রীর চেয়ারের দিকে। দেশ নিলামে উঠছে – উঠুক, মুল্যবৃদ্ধির চাপে মানুষের আজ দিশেহারা অবস্থা হচ্ছে – হোক, দেওয়া প্রতিশ্রুতি সব চুলোয় যাক – সব ভোট পার্টির আজ একটাই আশা – সেই প্রধানমন্ত্রী হোক।

গরিব মানুষের টাকা চুরি করে কোটিপতি মন্ত্রীদের ঘুষ দিয়েও ওরা বাঁচতে পারল না।  ধরা পড়ে আজ জেলে, বিচারের প্রহসন হচ্ছে।  মমতা ধরা পড়েও চিত্কার করছে – আমরা সারদার টাকা নিইনি।  সিপিএম বলছে নিয়েছে ওরা – আমরা নিইনি, কংগ্রেস বলছে সিবিআই তদন্ত হোক।  সবাই বলছে আমি চোর নই, আমি সাধু।  ওরা জনগণের ঘাড়ে সব দোষ চাপাতে চায়।

তাই এবারের ভোট একটা জিনিস প্রমাণ করেছে যে সব ভোট পার্টিই ভাঁওতাবাজ।  তাই দিকে দিকে আওয়াজ উঠেছে – ভোট বয়কট করুন।

তাই আমাদের পার্টি সি পি আই (এম – এল) এর স্রষ্টা, নকশালবাড়ীর জন্মদাতা শ্রদ্ধেয় নেতা কমরেড চারু মজুমদার ১৯৬৮ সালেই বলেছেন – নির্বাচন বয়কট করুন
তাই ক্ষমতায় যেই আসুক তাদের চক্রান্তের বিরুদ্ধে একটাই পথ যা  শ্রদ্ধেয় নেতা কমরেড চারু মজুমদার এর পথ, তারই উত্তরাধিকারী অন্তরের নেতা শ্রদ্ধেয় কমরেড মহাদেব মুখার্জী সেই পথ বারবার তুলে ধরেছেন এবং শ্রদ্ধেয় নেতা কমরেড চারু মজুমদারের স্বপ্নের শ্রেণী নেতৃত্ব – যা তিনি আমাদের ছেড়ে যাওয়ার আগে পার্টিতে নিজের হাতে প্রতিষ্ঠিত করেছেন – দায়িত্বে এক শক্তিশালী শ্রেণী নেতৃত্ব গড়ে দিয়েছেন, দায়িত্ব দিয়েছেন গরিব কৃষক আমাদের প্রিয় নেতা কমরেড মানিকদা’কে. তাইতো আজ দিকে দিকে সশস্ত্র শ্রেণী সংগ্রামের জোয়ার এসেছে।  বিহারের বুকে গড়ে উঠেছে ঘোগী বরিয়ারপুরের সাহায্যে দিকে দিকে ঘোগী বরিয়ারপুরের সংগ্রাম।  গড়ে উঠেছে মহাদেব মুখার্জী নগর।  গ্রামে গ্রামে দরিদ্র ভূমিহীন কৃষকের নেতৃত্বে কৃষকরাজ বিপ্লবী কমিটি।  যা আগামী দিনের পাল্টা সরকার।  যা চেয়ারম্যান মাও সে তুং ও ভাইস চেয়ারম্যান কমরেড লিন পিয়াও এর জনযুদ্ধের তত্বে সজ্জিত – মহান সর্বহারা সাংস্কৃতিক বিপ্লবের দান।  নকশালবাড়ী – শ্রীকাকুলাম – কামালপুর – কালীনগর – রাভিরালা – দ্বারপল্লি ঘোগী বরিয়ারপুরের পথে ওদের এই ভোটের চক্রান্তের বিরুদ্ধে মোকাবিলা করা যায় ও পরাজিত করা যায়।

এই সংগ্রাম শুধু জাতীয় নয় আন্তর্জাতিক সংগ্রামও বটে।  আজ বিশ্ব জুড়ে একই চক্রান্ত চলছে – জনগণের বিদ্রোহকে অন্যদিকে সাম্রাজ্যবাদীরা ওদের কব্জায় আনতে চায়।  যুগে যুগে এই জয়প্রকাশ নারায়ণরা, গান্ধীর দালাল আন্না হাজারেরা, আম আদমী পার্টির কেজরীওয়ালরা এসেছে সংগ্রামে বিশ্বাসঘাতকতা করার জন্যে।  আজকে ওদের সমস্ত চক্রান্ত ভেস্তে যাচ্ছে।  জনগণই ওদের চক্রান্ত ভেঙ্গে দিচ্ছেন।  কারণ এটা সাম্রাজ্যবাদের ধংসের যুগ, সমাজতন্ত্রের বিজয়ের যুগ, আত্মত্যাগের যুগ, পাল্টা মারের যুগ।

অন্তরের নেতা শ্রদ্ধেয় কমরেড মহাদেব মুখার্জীর স্বপ্নকে আজ বাস্তবায়িত করতে হবে – তিনি বলে গেছেন শ্রদ্ধেয় নেতা কমরেড চারু মজুমদারের হাতে গড়া সি পি আই (এম – এল) এর নেতৃত্বে ভারতবর্ষ মুক্ত হবেই।  আমাদের প্রিয় শ্রেণী নেতৃত্ব কমরেড মানিক বলেছেন নির্ভয়ে এগিয়ে যান – জয় আমাদের হবেই।  কারণ আমাদের সাথেই আছেন শ্রদ্ধেয় নেতা কমরেড চারু মজুমদার, পার্টির নেতা শ্রদ্ধেয় কমরেড সরোজ দত্ত, অন্তরের নেতা শ্রদ্ধেয় কমরেড মহাদেব মুখার্জী।

লাল সেলাম।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটি

শ্রদ্ধেয় নেতা কমরেড চারু মজুমদারের হাতে গড়া, অন্তরের নেতা শ্রদ্ধেয় কমরেড মহাদেব মুখার্জীর দ্বারা প্রতিষ্ঠিত মহান শ্রেণী নেতৃত্ব দ্বারা পরিচালিত

ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী – লেনিনবাদী)   
 
২৪ এপ্রিল ২০১৪

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s